সিলেটবুধবার , ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. জোকস
  12. টপ নিউজ
  13. তথ্যপ্রযুক্তি
  14. দেশে বাইরে
  15. ধর্ম

অজানা ভাইরাস আতঙ্কে অস্থির ফ্রান্স শিবির

পুর্বের আলো অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : ডিসেম্বর ১৭, ২০২২
Link Copied!




অজানা ভাইরাস আতঙ্কে অস্থির ফ্রান্স শিবির, দুঃসংবাদ এবং সাফল্য, দুটোর সঙ্গে গলাগালি ধরেই এগিয়ে চলেছে ফ্রান্স। মাঠের একের পর সাফল্যে টানা দ্বিতীয় বারের মতো এবং সব মিলে চতুর্থ বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ফরাসিরা। আগামীকাল রোববার সেই স্বপ্নের ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ আর্জেন্টিনা। এখন তাই সময় ফাইনালের জন্য চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেওয়ার। কিন্তু প্রস্তুতি নেবে কি, ফাইনালের আগে ঠান্ডজনিত অজানা এক ভাইরাস আতঙ্কে ফ্রান্স শিবির অস্থিরতায় কাঁপছে।  ফাইনালের আগে যে ফ্রান্সের তিন জন খেলোয়াড় ঠান্ডাজনিত ভাইরাসে আক্রান্ত। রোববার স্বপ্নের ফাইনালে তারা খেলতে পারবেন কি না, তা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। প্রথম আলো খেলার খবরএই তিন জনের মধ্যে দুজন মরক্কোর বিপক্ষে সেমিফাইনালেও খেলতে পারেননি। মিডফিল্ডার আদ্রিয়ান রাবিওত ও রক্ষণভাগের অন্যতম বড় ভরসা দায়োত উপামেকান সেমিফাইনালের আগেই অজানা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন। শেষ পর্যন্ত তাদের ছাড়াই সেমিফাইনাল খেলতে হয়েছে ফ্রান্সকে। ফাইনালের আগে দলের এই দুই গুরুত্বপূর্ণ সদস্য সুস্থ হয়ে উঠবেন, এটাই প্রত্যাশা ছিল ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশমের। কিন্তু ফ্রান্স কোচের অস্থিরতা আরো  বেড়েছে।

কারণ, এই দুজন সুস্থ তো হন—ইনি, উলটো তাদের সঙ্গে নতুন করে আরো এক জন ঠান্ডাজনিত ভাইরাসে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। অনুশীলন বাদ দিয়ে তাদের শুয়ে থাকতে হচ্ছে হোটেলের বিছানায়। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন কিংসলে চমন। অসুস্থ তিন ফুটবলারকে দলের অন্যদের থেকে আলাদা রাখা হয়েছে। ছোঁয়াচে ভাইরাস যাতে পুরো দলের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে না পারে, সেজন্যই এই ব্যবস্থা।



অজানা ভাইরাস আতঙ্কে অস্থির ফ্রান্স শিবির

হতাশার সঙ্গে ফ্রান্স কোচ দেশম বলেছেন, ‘এখন ভাইরাসের মৌসুম। সেটাই হচ্ছে।  অনেকের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেছে। আমাদের তাই সতর্ক হয়ে চলতে হচ্ছে।’ দেশম আশাবাদী রাবিওত ও উপামেকান রোববারের আগেই সেরে উঠবেন।

এখন নয়, দুঃসংবাদ ফরাসিদের সঙ্গী হয়েছে বিশ্বকাপের দল ঘোষণার আগে থেকে। চোটের কারণে দল ঘোষণার আগেই বিম্বকাপ স্বপ্ন গুঁড়িয়ে যায় ফ্রান্সের মাঝমাঠের প্রধান দুই সৈনিক এনগোলো কন্তে ও পল পগবাসহ ৪ জনের। নিয়মিত একাদশের ৪ জনকে হারিয়ে দল ঘোষণা করাটাই কঠিন হয়ে পড়ে দেশের জন্য। কিন্তু দেশমের দুর্ভাগ্যের সেখানেই শেষ নয়, বরং শুরু! কোনো রকমে দল ঘোষণার পরও বড় এক ধাক্কা খান দেশম।

দল ঘোষণার পরও দল থেকে ছিটকে পড়েন তিন জন। যার মধ্যে ছিলেন রক্ষণের অতন্দ্র প্রহরী প্রেসনেল কিমপেম্বে এবং ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমা। এর মধ্যে বেনজেমা তো চোটে পড়েন কাতারে আসার পর! যার পরিবর্তে কাউকে দলেই নেননি দেশম। এই কঠিন পথ পাড়ি দিয়েও দলকে ফাইনালে তুলেছেন দেশম। কিন্তু সেই ফাইনালের আগে আরেক দুঃসংবাদ। অবশ্য দেশমের জন্য একটা সুখবরও আছে, চোট থেকে সেরে উঠেছেন বেনজেমা। দেশম চাইলে তাকে খেলাতে পারবেন ফাইনালে।

বিস্তারিত আরও পড়ুনঃ  অজানা ভাইরাস আতঙ্কে অস্থির ফ্রান্স শিবির

  • এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।